নকশিপল্লী (পূর্বাচল) – ঢাকা

যারা আধাবেলা কিংবা একদিনের জন্য অল্পযাত্রার রাজধানী ঢাকার কাছাকাছি একটি ফুরফুরে সফর দিতে চান, তাদের জন্য ভোলাণাথপুর বাজার ও নকশীপল্লী(Nokshi Polli) হতে পারে একেবারে ভিন্ন স্বাদের ছোট একটা ভ্রমণ। রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোড থেকে নতুন ৩০০ ফিট রাস্তা ধরে পর পর দুটো ব্রিজ পার হলেই ভোলানাথপুর  আর ভোলানাথপুর থেকে একটু ভেতরে গেলেই নকশীপল্লী। আগেই বলে রাখি  নকশী পল্লী আসলে কোনো ঘোরার জায়গা নয় এটা শুধু একটা রেস্টুরেন্ট। তবে রেস্টুরেন্ট হলেও নামের মতোই এর আবহাওয়া যেন গ্রামের সবুজ মাখানো!

বিস্তৃত জায়গা নিয়ে সাজানো রেস্টুরেন্টটি শুধু খাওয়ার জন্য নয়, ঘুরে দেখা এবং সময় কাটানোর জন্যও চমৎকার। মাঝে বড় একটি পুকুর, তার অপর দিয়ে চলে কাঠের রাস্তা। পুকুরের চারদিকে ছনের ঘরের আদলে টানা বারান্দা আর সেখানেই বসার ব্যবস্থা। জন্মদিনের পার্টি, ফটোশ্যুটসহ যে কোনো আয়োজনে জায়গাটি এক কথায় অসাধারণ। এমনকি ঘোড়ার গাড়িতে কিংবা সুন্দর নৌকায় চড়তে পারবেন!!!

শরতকালে চারপাশের কাশফুলযেন স্বাগত জানায়। নিরিবিলি পরিবেশ ছায়া সুনিবিড় এক শান্ত পল্লী যেন। তবে যাওয়ার পথে ভোলানাথপুর বাজার থেকে মিস্টি, চাপ আর নানা মাছের বারবিকিউ খেয়ে যেতে ভুলবেন না।

নকশিপল্লী (পূর্বাচল) এর অবস্থান –

পূর্বাচল,সেক্টর -০১, রোড-৪০২, প্লট -০৬, গুদারা ঘাট,পূর্বাচল বালু নদীর পাশে।

নকশিপল্লী  এর ফোন নাম্বার – 01821-888995

নকশিপল্লী (পূর্বাচল)  কিভাবে যাবেন –

ঢাকার যেকোনো জায়গা থেকে আগে আপনাকে ৩০০ ফুটে আসতে হবে..আপনি চাইলে নিজস্ব গাড়ি নিয়ে যেতে পারেন.. ৩০০ ফুট থেকে পূর্বাচল যাওয়ার পথে ২টা ব্রিজ পরছে.. প্রথমে পড়বে বোয়ালিয়া ব্রিজ তারপরে পড়বে বালু ব্রিজ.. বালু ব্রিজ পার হয় ডানে টার্ন নিতে হবে ওখানে দেখবেন লেখা আছে ভোলানাথপুর কবরস্থান.. এই ভিতরের পথ ধরেই চলে যাবেন.. আর যাদের গাড়ি নেই ৩০০ ফুটে এসে এখান থেকে অটোতে আপনাকে যেতে হবে “বালু ব্রিজ” প্রতিজনের অটোভাড়া নিবে ৩০ টাকা. অটো থেকে নেমে ভিতরে কিছুদূর হাটলেই পেয়ে যাবেন “নকশিপল্লী”

তথ্য সংগ্রহ ও উপস্থাপনায়: ভ্রমণ পাগল,
সর্বশেষ আপডেট হয়েছে: ফেব্রুয়ারী 7, 2018

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.