গনেশ পাগলের সেবাশ্রম – মাদারীপুর

২৭ মে শুক্রবার ১৩ জ্যৈষ্ঠ প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ী দীঘিরপাড় মহামানব শ্রীশ্রী গনেশ পাগল সেবাশ্রম(Ganesh Pagol Sebashram) সংঘে শুরু হচ্ছে উপমহাদেশের অন্যতম কুম্ভমেলা। ১৬৭ একর জমিতে এক রাতের জন্য উপমহাদেশের অন্যতম দেড়,শ বছরের ঐতিহাসিক কুম্ভমেলা অনুষ্ঠিত হবে।

এক রাতের মেলা হলেও চলে পরদিন ভোর রাত পর্যন্ত। প্রায় ৯ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে পুরো একটি এলাকার বাড়ী-ঘর, মাঠ-ঘাট ও ক্ষেত-খামারে কোন জায়গা খালি থাকে না মানুষের পদচারনায় । সমাগম ঘটে প্রায় ২০ লক্ষাধিক মানুষের।
এ মেলাকে সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রসাশন ও এলাকাবাসীর সমন্বয়ে সোমবার বিকালে গোবিন্দ মন্দিরে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। গনেশ পাগল সেবাশ্রম সংঘের সভাপতি জগদীশ চন্দ্র বিশ^াসের সভাপতিত্বে,বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন রাজৈর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শান্তি দাস,থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন ভূঁঞা। এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কদমবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যার বিধান বিশ^াস, কলাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা,সাতপাড় ইউপি চেয়ারম্যান সবুজ বিশ^াস, জলিলপাড় ইউপি চেয়ারম্যান অখিল বৈরাগী, প্রভাষক ও সাংবাদিক বিনয় জোয়ারদার,সাংবাদিক সাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ।
মেলা উদযাপন কমিটির সাধারন সম্পাদক সুবোধ সরকার জানান, মেলায় আগত ভক্তদের আপ্যায়নে ১৫০মন চিড়া, ৫০ মন গুড় ও প্রায় ১হাজার মন চাল-ডালের খিচুরী প্রসাদ বিতরন করা হবে এবং এ দিনটি শান্তিপূর্ন ভাবে উদযাপনের সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহন করা হয়েছে । শিবচরের ভক্তদের পক্ষ থেকেও বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদের উপজেলা শাখার উদ্যোগে বিশাল ভক্তসেবার আয়োজন করা হয়েছে।
রাজৈর থানার ওসি আনোয়ার হোসেন ভূঞা জানান, মাদারীপুর ডিবি পুলিশ, র‌্যাব -৮ এর সদস্যবৃন্দ ও রাজৈর থানা পুলিশের সমন্বয়ে নিরাপত্তা বলয় তৈরী করা হয়েছে ।
রাজৈর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শান্তি দাস জানান, মেলা শান্তিপূর্নভাবে সম্পন্ন করার সকল প্রকার প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে। এখানে আগত ভক্তদের জন্য নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশনের ব্যবস্থা রাখার জন্য গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়াও ভক্তদের জন্য যে প্রসাদের আয়োজন করা হবে তা যেন স্বাস্থ্যসম্মত হয় সেদিকে বিশেষ নজর রাখতে হবে।
প্রস্তুতি সভাটি সার্বিক পরিচালনা করেন মেলা উদযাপন কমিটির সাধারন সম্পাদক সুবোধ সরকার।

কিভাবে যাওয়া যায়ঃ

ঢাকা-টেকেরহাট রুটে টেকেরহাট নেমে মাহিন্দ্রাযোগে কদমবাড়ী গণেশপাগল সেবাশ্রম।

মগ্র বাংলাদেশ তথা প্রথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের মানুষের কাছে মহামানব গণেশপাগলের নাম মুখেমুখে। প্রতিবছর ১৩ই জৈষ্ঠ্য মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলাধীন কদমবাড়ীতে অনুষ্ঠিত হয় কুম্ভের মেলা তথা গণেশপাগলের মেলা। জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকল ধর্মের লক্ষ লক্ষ মানুষ এই মেলায় আসে। মানুষের বিশ্বাস যে এই মেলায় আসলে এবং গণেশ পাগলের মন্দির দর্শণ করলে তাদের সমস্ত বিপদ কেটে যায়।

অবস্থানঃ

সেবাশ্রমটি ৩৬৫ বিঘা জমি নিয়ে অবস্থিত। নাট মন্দি, গোবিন্দ মন্দির সহ অনেক মন্দির রয়েছে।

তথ্য সংগ্রহ ও উপস্থাপনায়: সাফায়েত,
সর্বশেষ আপডেট হয়েছে: ফেব্রুয়ারী 19, 2018

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.